১. অার্টস ফ্যাকাল্টি প্রশ্ন করা মানে অধিকাংশ ক্ষেত্রে প্রশ্ন একটু কঠিন আর ১০০% কোনো না কোনো ইন্ডিয়ান সাইট বা কোনো জায়গা থেকে ফুল কপি পেস্ট করবে। তবে সোনালি ব্যাংকের বিগত যে কোনো সালের প্রশ্ন দেখলে বুঝা যায় সোনালী ব্যাংকের প্রশ্ন ততটাও কঠিন হয়না যতটা কঠিন হলে আমরা এখন অবাক হইনা।
২) বাংলা অংশের জন্য নতুন গাইড থেকে বিগত সব বছরেরর প্রশ্ন মুখস্থ করে ফেলুন। যদি বাংলা প্রশ্ন কমন না আসে তাহলে চিন্তার কারণ নাই। সবার জন্যই সেটা কঠিন হবে।
২) ইংরেজি পার্ট টা ব্যাসিক এর উপড় নির্ভর।  আহামরি কঠিন আসেনা প্রিলিতে। ব্যাসিক মোটামুটি ঠিকঠাক থাকলে আপনার কাজ হবে examveda, indiabix,  gyanjosh  এসব জব সাইট থেকে vocabulary, one word substitution,  idioms, gaps, analogy,  spelling এই পার্ট গুলা আয়ত্ত করে ফেলা। ইংলিশ পার্ট এর সব গুলা প্রশ্ন কোন না কোনো সাইট থেকে কপি করে দিবে আর্টস ফ্যাকাল্টি এটা মোটামুটি নিশ্চিত।
৩) অংকের কথা আর কি বলবো! অংক শেখার কোনো শেষ নাই। তবে প্রশ্ন যদি খুব বেশি কঠিন না করে তাহলে আপনার প্রিপারেশনেন উপড় নির্ভর করে বিগত ৫ বা ৬ বছরেরর অংক গুলা বুঝে করতে পারলে আপনি যে কোনে সরকারী ব্যাংকের প্রিলি তে ম্যাথে ভালো করা যাবে।
৪) কম্পিউটার অংশে ইজি কম্পিউটার বইটা পুড়াটা মুখস্থ থাকা মানে আপনার ৭০% প্রিপারেশন হয়ে গেলো। এক পরীক্ষায় কমন না আসলেও পড়া গুলা কখনোই বৃথা যাবেনা ।  কোনো না কোনো পরীক্ষায় কমন আসবেই। অতিরিক্ত হিসাবে ঐসব ওয়েব থেকে পড়বেন বইটা পড়ার পর।
৫) সাধারন জ্ঞান খুব ইম্পরটেন্ট একটা অংশ। এটাতে ভালো করলে অন্যদের চাইতে ১০ টা নাম্বার খুব ইজিলি বেশি পেতে পারবেন। অনেকে সাধারণ জ্্ঞানে খুব দুর্বল। একটা অংকেও যা নাম্বার এটাতেও তা। সাধারণ জ্ঞানের জন্য আন্তর্জাতিক পার্ট টা ভালভাবে পড়বেন। সাম্প্রতিক আর্ন্তজাতিক থেকে চার /পাচ বা আরো বেশি নাম্বারের প্রশ্ন তো থাকবেই মাস্ট। অবশ্যই বিগত তিন মাসের কারেন্ট এফোয়ার্স  ভালভাবে পড়তে হবে। আর আমি গতকাল এবং াররেকদিন মোট ২ টা আন্তর্জাতিক বিষয়ের উপড় টেষ্ট নিয়েছি, অতি সাম্প্রতিক বিষয়ের উপড়। সে গুলা অবশ্যই দেখবেন।
সবশেষে নতুনদের বলতে চাই,  আপনার প্রিপারেশন খারাপ, কারণ আপনি নতুন,  মাত্র শুরু করেছেন।  যদি এটা হয় তাহলে ঠিক আছে। এই লাইনে মেধাবি বলে কোনো কথা নাই। বাস্তবতা হলো যে যত বেশি দিন ধরে সময় অপচয় না করে প্রিপারেশন নিচ্ছে তারাই এগিয়ে থাকবে। প্রতিটা খারাপ এক্সাম আপনাকে নতুন করে অনেক কিছু শিখতে আগ্রহী করবে। প্রতিটা খারাপ এক্সাম আপনাকে বলে দিবে আপনি কতটা পেছনে আছেন আর কতটা অগ্রসর হতে হবে। প্রিলির প্রিপারেশন এমন ভাবে নিবেন যাতে বার বার এটা নিয়ে বসতে না হয়। যা পড়বেন ভালভাবে পড়বেন।  কোনো তাড়াহুড়া না। একবারেরর ভালো প্রিপারেশন দিয়ে হাজারটা পরীক্ষা দিতে পারবেন।
সবার জন্য শুভ কামনা।
ফেসবুক থেকে সংগ্রহীত

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *