যেকোনো পরীক্ষা দিয়ে এসে যদি ভালো প্রস্তুতি থাকার পরও পরীক্ষা খারাপ হয় সেটা নিয়ে অবশ্যই একটু বিশ্লেষণ করবেন । মানে নিজেকে একটু প্রশ্ন করে যাচাই করতে হবে, যেটা অনেকেই করেনা । যেকোনো পরীক্ষায় আপনি যেসব কারণে ব্যর্থ হচ্ছেন সে কারণগুলো বের করে সেগুলো দূর করতে পারলেই কিন্তু আপনার সফল হবার সম্ভাবনা বেড়ে যাবে । 

পরীক্ষায় কে কি করলো, কে কেমন পরীক্ষা দিলো এসব নিয়ে মাথা না ঘামিয়ে নিজেকে যাচাই করুন, আপনার কেমন প্রস্তুতি ছিল, প্রস্তুতিতে কোন গ্যাপ ছিল কিনা, পরীক্ষার হলে কি মাথা গরম হয়ে গিয়েছিলো, নাকি সময় এডজাস্ট করতে পারেন নি, না পারলে কেন পারেন নি, কঠিন প্রশ্নগুলো নিয়ে কি বেশি সময় নষ্ট করেছেন, নাকি অযথাই ঘাবড়ে গিয়েছেন, নাকি বেশি তাড়াহুড়ো করতে গিয়ে সহজ প্রশ্নগুলো ভুল করেছেন, নাকি তাড়াহুড়োয় প্রশ্নই ঠিকমতো পড়েননি, নাকি ভুল দাগিয়েছিলেন, নাকি পরীক্ষার হলে আশেপাশের মানুষের কথা দ্বারা প্রভাবান্বিত হয়েছেন, নাকি যা পারেন সেগুলো উত্তর না করে কঠিন প্রশ্ন নিয়ে মাথা গরম করে পরে সহজগুলো ভুল করে এসেছেন ?????? কি করেছেন ? নিজেকে নিয়ে ভাবুন, নিজেকে প্রশ্ন করুন, আপনার নিজের ভুল আপনিই সবচেয়ে ভালো বের করতে পারবেন, অন্য কেউ আপনার মত করে আপনার নিজের ভুল বের করতে পারবে না, কারন নিজের যেকোনো পরীক্ষার আনকাট ভার্সন কথা শুধু আপনিই জানেন যা কাউকে কখনোই বলেন না । prebd. com
একই ভাবে একই টাইপ পরীক্ষা বারবার দিয়ে ব্যর্থ হলে অবশ্যই আপনার পরীক্ষার দুর্বলতা বের করতে হবে । নাহলে তো একই রকম রেজাল্ট আসতে থাকবে । তাই যেকোনো পরীক্ষায় ব্যর্থ হলে সেটি নিয়ে একটু হলেও ঘাঁটাঘাঁটি করুন । প্রতিনিয়ত নিজেকে আপগ্রেড করার চেষ্টা করতে হবে, বসে গেলেন তো থেমে গেলেন, থেমে গেলেন তো হেরে গেলেন, কিন্তু হারবেন কেন ? আপনার তো হারার কথা না । চেষ্টা চালিয়েই যাবেন, শেষ দেখেই ছাড়বেন, ভালো থাকবেন সবাই,Good luck guys.

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *